রোহিঙ্গা নির্যাতনের জন্য দায়ী একজনকে সনাক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র

প্রিয়াংকা পান্ডে: চলতি বছরের ২৫ আগষ্ট থেকে মিয়ানমারে সংখ্যালঘু মুসলিম রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির উপর চলা নির্মম নির্যাতনের জন্য দায়ি ‘এক ব্যক্তিকে’ চিহ্নিত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। শুক্রবার মিয়ানমারের রোহিঙ্গা ইস্যু এবং এর পিছনে মদদ দেওয়া ওই ব্যক্তি সম্পর্কে মন্তব্য করে মার্কিন স্টেট সেক্রেটারি রেক্স টিলারসন।

গতমাসে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির উপর মিয়ানমার সেনাদের অত্যাচারকে ‘জাতিগত নির্মূল’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে দায়ি ব্যক্তিদের চিহ্নিত করার কথা জানিয়েছিলেন টিলারসন।

শুক্রবার তিনি বলেন, ‘আগষ্ট থেকে মিয়ানমারে চলা সকল ঘটনা নিয়ে বিশদভাবে বিশ্লেষণ চলছে। ইতোমধ্যে আমরা এই ঘটনার জন্য দায়ি একজনকে চিহ্নিত করেছি। ঘটনার পিছনে আরো কতজনের হাত রয়েছে তা নিয়ে তদন্ত চলছে। যুক্তরাষ্ট্র থেকে দায়ি ব্যক্তিদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হচ্ছে।’

বিবৃতিতে মিয়ানমারের কোন ব্যক্তিকে দায়ি করা হয়েছে এবিষয়ে কোন নাম প্রকাশ করা না হলেও বিশ্লেষকদের মতে দায়ি ব্যক্তি হিসেবে মিয়ানমার সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং’র নাম থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা মিয়ানমারের উপর আবারও চাপ সৃর্ষ্টি করবে বলে ধারণা করা যায়। এবছর প্রাণরক্ষার তাগিদে ৬লাখের বেশি মানুষ মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ায় বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। রয়টার্স