সাংবাদিক মারধরের মামলায় মন্ত্রীপুত্র তমাল কারাগারে (ভিডিও)

নিজস্ব প্রতিবেদক : সাংবাদিকদের উপর হামলা মামলায় ভূমিমন্ত্রীপুত্র শিরহান শরীফ তমালের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছেন আদালত। বুধবার পাবনা আমলী আদালতের বিচারক রেজাউল করিম এ আদেশ দেন। এর আগে সকাল থেকেই আদালত চত্বরে ভিড় জমায় তমালের সমর্থকরা। ১৭টি মাইক্রোবাসযোগে তমাল সমর্থকরা এসে দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল করে। এ সময় আদালত চত্বরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়।

দুপুর ১২টার দিকে তমালকে বহনকারী গাড়িটি পুলিশকে চাপা দিয়ে আদালত চত্বরে প্রবেশ করে। এ সময় তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। পরে পাবনার আমলী আদালত-১ এ হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পাবনা আমলী আদালত-১ এ হাজির হয়ে শিরহান শরীফ তমাল হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে আদালতের বিচারক রেজাউল করিম নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

তিনি আরো বলেন, পাবনার সরকারি কৌঁসুলী (পিপি) আক্তারুজ্জামানের গাড়িতে করে মামলার প্রধান আসামি ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি শিরহান শরীফ তমাল আদালত চত্বরে আসেন। এ সময় পুলিশ বাধা দিয়ে গ্রেফতারের চেষ্টা করলে গাড়িটি পুলিশকে চাপা দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করে। এ সময় দুই পুলিশ সদস্য গোয়েন্দা পুলিশের এএসআই আবু সাঈদ ও কনস্টেবল জাহাঙ্গীর হোসেন মারাত্মক আহত হন। পুলিশ সুপার জেলার বাইরে অবস্থান করায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে মামলা করা হতে পারে বলে তিনি জানান।

এদিকে, দুপুরে ভূমিমন্ত্রীপুত্র তমালের বিচার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ শেষে জেলা প্রশাসক এবং পুলিশ সুপারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করে পাবনার সর্বস্তরের সাংবাদিকরা।
শহরের বীরমুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম বকুল পৌর মিলনায়তন চত্বরে জেলা সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি আব্দুল মতীন খানের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন- দেশবরেণ্য সাংবাদিক ও কলামিস্ট রনেশ মৈত্র, পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম রবি, পাবনা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি হাবিবুর রহমান স্বপন, পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সম্পাদক এ বি এম ফজলুর রহমান, সংবাদপত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শহিদুর রহমান শহীদ, পাবনা রিপোর্টার্স ইউনিটির সম্পাদক কাজী বাবলা প্রমুখ। সমাবেশে পাবনা সংবাদপত্র পরিষদ, পাবনা প্রেসক্লাব, পাবনা রিপোর্টার্স ইউনিটি, পাবনা টেলিভিশন ও অনলাইন সাংবাদিক সমিতি ও জেলার সকল উপজেলার প্রেসক্লাব নেতারা ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে অংশগ্রহণ করেন। সমাবেশ শেষে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৯ নভেম্বর রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্প এলাকায় সশস্ত্র অবস্থায় প্রতিপক্ষের উপর হামলা করে ভূমিমন্ত্রীপুত্র শিরহান শরীফ তমাল ও তার ক্যাডার বাহিনী। এ ঘটনার ছবি ধারণ করতে গেলে তাদের হামলায় গুরুতর আহত হন সময় টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি এস এ আসাদ, ডিবিসির জেলা প্রতিনিধি পার্থ হাসান, পরিবর্তন ডটকম ও এটিএন নিউজের জেলা প্রতিনিধি রিজভী জয়, ক্যামেরা পারসন মিলন হোসেন। সাংবাদিক হত্যা চেষ্টার ঘটনায় তমাল ও রাজীব সরকারের নাম উল্লেখ করে আরো অজ্ঞাত ২৫/৩০ জনকে আসামি করে ঈশ্বরদী থানায় মামলা করা হয়।