এনআরবিসি ব্যাংকের নীতিমালাতেই গলদ ছিল : নতুন চেয়ারম্যান

আনোয়ার হোসেন: এনআরবিসি ব্যাংকের নীতিমালাতেই গলদ ছিলো বলে অভিযোগ করেছেন এনআরবিসি ব্যাংকের নতুন চেয়ারম্যান তমাল এস এম পারভেজ। এ কারণেই বিভিন্ন অনিয়মের কথা উঠে এসেছে। সোমবার এনআরবিসি ব্যাংকের নতুন পর্ষদ বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নরের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, এনআরবিসি ব্যাংকের কর্পোরেট গভর্নেন্সের অভাব ছিল। সুশাসনের অভাব থাকায় সেখানে কিছু অনিয়মও হয়েছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সুনির্দিষ্ট নীতিমালা না থাকায় এই অনিয়ম হয়েছে। এনআরবিসি ব্যাংকের মূল উদ্দেশ্যই ছিল প্রবাসীদের নিয়ে কাজ করা। কিন্তু এখানে আমাদের জন্য আলাদা কোনো নীতিমালা নেই। সাধারণ ব্যাংক আর এনআরবি ব্যাংক একই নিয়মে চলছে। বাংলাদেশ ব্যাংক এনআরবিসি ব্যাংক নিয়ে যে সমস্যা ধরেছে, পর্ষদ সদস্য হয়েও আমরা তা জানতে পারিনি। এখন আমরা বিষয়টি জানলাম এবং বিষয়গুলো সমাধান করবো। ব্যাংকের নতুন পর্ষদের সবাই বিদেশে প্রতিষ্ঠিত। আমাদের কাছে এখনও ব্যাংকের সম্পূর্ণ আর্থিক বিবরণী আসেনি। পরে আমরা সবকিছু জানাবো।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র শুভঙ্কর সাহা বলেন, এনআরবিসি ব্যাংকের নতুন পরিচালনা পর্ষদ বাংলাদেশ ব্যাংকে এসেছেন। তারা জানিয়েছেন, ব্যাংক ও ব্যাংকের আমানতকারীদের স্বার্থ রক্ষা করে আইনি প্রক্রিয়ায় ব্যাংক পরিচালনা করবেন। তারা বাংলাদেশ ব্যাংকের যে গাইডলাইনস আছে তা মেনে এনআরবিসি ব্যাংকের উন্নয়ন কার্যক্রম এগিয়ে নিয়ে যাবেন বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।

এর আগে গত রোববার ব্যাংকটির প্রধান কার্যালয়ে এক জরুরি পর্ষদ সভায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) পদে পরিবর্তন আনা হয়। এ ছাড়া ব্যাংকটির সব কমিটির চেয়ারম্যানও পদত্যাগ করে। ওই সভায় পদত্যাগ করা পর্ষদ ও নতুন পর্ষদের অধিকাংশ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। এরপরই গতকাল ব্যাংকটির নতুন পর্ষদ বাংলাদেশ ব্যাংকে আসে। বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে বাণিজ্যিক ব্যাংকটির নতুন পর্ষদকে পরিচালনার ব্যাপারে নির্দেশনা দেয়া হয়।