বিএসএমএমইউতে পায়ে অপারেশন শেষে পোস্ট অপারেটিভে ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী

রিকু আমির : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) আঘাতপ্রাপ্ত বাম পায়ের গোড়ালিতে অপারেশন শেষে মুক্তিযোদ্ধা ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণীকে পোস্ট অপারেটিভ ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার মজুমদার সোমবার এ প্রতিবেদককে জানান, রোববার এই অপারেশন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ্রোপেডিক্স বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নকুল কুমার দত্তের নেতৃত্বে সম্পন্ন হয়েছে।

গত ২৩ নভেম্বর বিএসএমএমইউ’র লিভার বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীলের অধীনে ভর্তি হন ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী। তিনি ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ছাড়াও লিভার, কিডনি, ইউরিন ও থাইরয়েডের নানা জটিলতায় আক্রান্ত।

অন্যদিকে, গত ৬ নভেম্বর বাসায় বাথরুমে পা পিছলে আঘাত পান। এতে তার বাম পায়ের গোড়ালির হাড় স্থানচ্যুত হয়ে পড়ে।

এরপর ল্যাবএইডে চিকিৎসা নিতে গিয়ে আক্রান্ত হন হৃদরোগেও। হৃদপি-ে পেসমেকার পরানোর পর পায়ের চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেবার কথা শোনা যাচ্ছিল।

কিন্তু দেশাত্মবোধ থেকে তিনি বিদেশে চিকিৎসা নিতে নারাজ ছিলেন। পরে সরকারি তত্ত্বাবধায়নে বিএসএমএমইউতে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার মজুমদার জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের হৃদরোগ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জী, অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নকুল কুমার দত্ত, অ্যানেসথেশিয়া বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক দেবব্রত বণিকসহ বিভিন্ন বিভাগের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক প্রিয়ভাষিণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করছেন।