জায়রার যৌন নিপীড়নকারী অবশেষে আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক : অভিযোগের ২৪ ঘণ্টা পার হওয়ার আগেই ধরা পড়লেন ভিস্তারা বিমানসংস্থায় বলিউড অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিমের যৌন হেনস্থাকারী। অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম বিকাশ সচদেব। পেশায় ব্যবসায়ী ৩৯ বছর বয়সী ওই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। তাঁকে আজ সোমবার আদালতে তোলা হতে পারে।

তবে আটক হলেও সচদেব পুলিশকে জানিয়েছেন, ইচ্ছাকৃতভাবে এই কাজ করেননি। এমনকি ঘটনার পর ক্ষমাও চেয়েছিলেন জায়রার কাছে। একবারই আমার পা জায়রার কাঁধে লেগেছিল, তাও অনিচ্ছাকৃতভাবে।

সচদেব আরও জানিয়েছেন, দিল্লিতে পরিবারের এক আত্মীয়ের বাড়িতে গিয়েছিলেন তিনি। সেখান থেকে ফেরার পথে ক্লান্ত হয়ে যাওয়ায় বিমানেই ঘুমিয়ে পড়েছিলেন। এমনকি খাবারও খায়নি। বিমান-সেবিকাদের জানিয়ে দিয়েছিলেন তাঁকে যেন বিরক্ত না করা হয়।

ভিস্তারা বিমানসংস্থাও তাঁদের রিপোর্টে একই কথা জানিয়েছে। এরপর সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে স্বামীর পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন অভিযুক্তর স্ত্রী। তবে পুলিশ এখনই ওই ব্যক্তির কথায় বিশ্বাস করতে চাইছে না। আপাতত বিষয়টি নিয়ে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করছেন পুলিশ আধিকারিকরা। অভিনেত্রীর বয়ান অনুযায়ী জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে আটক ব্যক্তিকে।

তবে আসামি যেভাবে ঘটনার বিবরণ দিয়েছেন, তার সঙ্গে অভিযোগকারীর বিবরণে বেশ খানিকটা পার্থক্য দেখা যাচ্ছে। ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা এক ভিডিওতে কান্নায় ভেঙে পড়েন দঙ্গল ছবির এই অভিনেত্রী। সেখানে জায়রা ওয়াসীম জানান, যে সিটে জায়রা বসেছিলেন, ঠিক তার পেছনের সিটেই যাত্রী ছিলেন বিকাশ সচদেব। অভিযুক্ত ব্যক্তি প্রথমে তার পা জায়রার সিটে তুলে দেয়। এতে প্রতিবাদ করেন জায়রা। তাতে হিতে বিপরীত হয়। পা নামাতে অস্বীকার করেন ওই ব্যক্তি। উল্টো নানাভাবে হেনস্তা করতে থাকেন জায়রাকে। তিনি আরও জানান, ওই ব্যক্তি পা দিয়েই এরপর তাঁকে খোঁচাতে থাকে। শরীরের আপত্তিকর জায়গায় স্পর্শ করে। বিমানের মধ্যে আধো অন্ধকারের সুযোগ নিয়েই কুকর্ম চালাতে থাকে ব্যক্তিটি। আলো এত কম ছিল যে, পুরো ঘটনার ঠিকঠাক ভিডিও করতে পারেননি অভিনেত্রী।

ইনস্টাগ্রামে জায়রার এই ঘটনার বিবরণ শুনে কেবল ভারতীয় মিডিয়ায় নয়, বিশ্বমিডিয়াও ফলাও করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ভারতজুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। প্রসাশনও যেন নড়েচড়ে বসে। দায়ের করা হয় মামলা। তারপরই আটক করা হয় অভিযুক্ত সবদেবকে।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন