ট্রাম্পের এই ঘোষণায় শান্তি প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হবে (ভিডিও)

ওয়ালি উল্লাহ সিরাজ: জেরুজালেম সম্পর্কে ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত সবাইকে অবাক কর দিয়েছে। এই সিদ্ধান্তটা গৃহীত হয়েছে ১৯৯৫ সালে। কিন্তু কোন মার্কিন প্রেসিডেন্টই এই সিদ্ধান্তে স্বাক্ষর করেননি বা অনুমোদন দেননি। জেরুজালেমটা হচ্ছে তিন ধর্মের লোকদের জন্যই পবিত্র স্থান। সেই সাথে এই স্থানটা সবার জন্যই গুরুত্বপূণ। আমরা জেরুজালেম সম্পর্কে যেটা জনাতে পারি সেটা হচ্ছে বিভিন্ন সময়ই এই স্থানটি নিয়ে সংঘাত হয়েছে। ট্রাম্পের এই ঘোষণা শান্তি প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি করবে। আগের প্রেসিডেন্টরা শান্তি প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে কিছুটা হলেও কাজ করেছেন কিন্তু এই ক্ষেত্রে আমরা ট্রাম্পের কোন ভূমিকা দেখতে পাচ্ছি না।


শনিবার দিবাগত রাতে চ্যানেল আইয়ের আজকের সংবাদপত্র অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েল সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক শামিম রেজা।

তিনি আরো বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কেন এমন ঘোষণা দিয়েছেন সেটা নির্দিষ্ট করে বলা কঠিন। কিন্তু হতে পারে আমেরিকার অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের সমাধান করতে ট্রাম্প প্রশাসন ব্যর্থ হয়েছে। এই কারণেই হয়তো ট্রাম্প এমন ঘোষণা দিয়েছেন। যার কারণে আমেরিকার মানুষরা তাদের বিষয় নিয়ে কথা না বলে এই বিষয়টি নিয়েই কথা বলবে।

শামিম রেজা আরো বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যাটা আমাদের জন্য বড় একটি সমস্যা। এখনো রোহিঙ্গারা আমাদের দেশে প্রবেশ করছে। আমরা একটি আশা নিয়ে মানবিকতা দেখিয়েছি কিন্তু এখন আমরা সঙ্কটের মাঝে আছি। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়াটাই বড় কথা নয়। এর সাথে আমাদের ভবিষ্যতের কথাও চিন্তা করতে হবে। সব থেকে বড় কথা হচ্ছে এখনো তারা আসছেই। তাদের আসা কোনভাবেই থামছে না।