এতো মোবাইল ফোন হাতে, কোনো অনুষ্ঠানে গেলে হাততালির শব্দ শোনা যায় না

রিকু আমির : সব কাজ সরকারের পক্ষে করে দেয়া সম্ভব নয় উল্লেখ করে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, সরকার সুযোগ সৃষ্টি করে দিতে পারে। এজন্য সরকারের সাথে আলাপ-আলোচনা প্রয়োজন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে এসিএম সিগ্রাফ ঢাকা চ্যাপ্টার শীর্ষক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক অলাভজনক প্রতিষ্ঠান সিগ্রাফ। এটি কম্পিউটার গ্রাফিক্স এবং ইন্টার‌্যাক্টিভ টেকনিক নিয়ে কাজ করে। ১৯৬৯ সালে অ্যান্ডি ভ্যান ড্যাম এটি প্রতিষ্ঠা করেন। এসিএম সিগ্রাফ বার্ষিক সিগ্রাফ সম্মেলনের আয়োজন করে। এতে কম্পিউটার পেশাজীবীরা অংশগ্রহণ করেন। লস অ্যাঞ্জেলেস, লন্ডন, হংকং, ম্যানিলা, বাংকক-সহ বিশ্বের বিভিন্ন শহরে থাকা সিগ্রাফ চ্যাপ্টারের সাথে সংযুক্ত হল সিগ্রাফ ঢাকা চ্যাপ্টার।

মন্ত্রী কৌতুক করে বলেন, আমাদের সময় মোবাইল ক্রয় করতে লাগতো লাখ টাকা, ধরতে ১০, ফোন করতে ২০ টাকা লাগত। আর আজকে এতো মোবাইল ফোন হাতে যে, কোনো অনুষ্ঠানে গেলে হাততালির শব্দ শোনা যায় না।

অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ ছিলেন- অস্কার বিজয়ী, জন্মসূত্রে বাংলাদেশি, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসি ও এনিমেটর নাফিস বিন যাফর। তিনি এনিমেশন সংক্রান্ত একটি অংক নিয়ে আলোচনা করেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত কম্পিউটার পেশাজীবীদের উদ্দেশে।

মন্ত্রী বলেন, তথ্যপ্রযুক্তিকে নতুন পৃথিবী হিসেবে বেছে নিয়েছেন আমাদের তরুণরা। যেভাবে জনসংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাতে আর কয়েক বছর পর সে অনুপাতে সরকারি চাকরি মিলতে কষ্ট হবে, বেসরকারিখাতেও যে চাকরি মিলবে- বলা মুশকিল। কিন্তু তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে তরুণরা যদি আত্মনির্ভরশীল হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে ফেলে, আর কী দরকার হবে ওসব চাকরির।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বিশিষ্ট বিজ্ঞাপন নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী, হলিউডের বিখ্যাত এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সনি পিকচার্স ইমেজওয়ার্কসে অ্যাসোসিয়েট প্রডাকশন ম্যানেজার ওয়াহিদ ইবনে রেজা অংশ নেন। রেজা কানাডা থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠান উপভোগ করেন এবং কথা বলেন।