জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষাণায় যেভাবে দেখছে মুসলিমবিশ্ব

ওমর শাহ : জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট যে ঘোষণা দিয়েছেন তার বিরুদ্ধে বিশ্বের বিভিন্ন দেশসহ মুসলিম বিশ্ব তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। এ ইস্যুতে একই সুরে কথা বলছে ইরান ও সৌদিও। শিয়া সুন্নি দ্বন্দ্বে এ দুটি দেশ পারস্পরিক বৈরিতা রাখলেও জেরুজালেম প্রশ্নে ট্রাম্পের সমালোচনা করেছে সৌদি বাদশাহ সালমান ও ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি।

জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণার পর ট্রাম্পের সমালোচনা করে সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ট্রাম্পের এ ভূমিকা অগ্রহণযোগ্য। সৌদি আরব কখনোই ট্রাম্প প্রশাসনের এ ভূমিকাকে সমর্থন করবে না। এর মাধ্যমে ফিলিস্তিনের জনগণের অধিকারকে ক্ষুণ্ণ করা হয়েছে বলে তিনি অভিহিত করেন। সেই সঙ্গে তিনি ট্রাম্পকে তার সিদ্বান্ত পুনবিবেচনা করারও আহ্বান জানান।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বুধবার রাতে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে ট্রাম্পের এ ঘোষণাকে আন্তর্জাতিক আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন বলে উল্লেখ করেছে। ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস ও ফিলিস্তিন মুক্তি সংস্থা পিএলও আলাদা বিবৃতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্টের এ পদক্ষেপের ঘোর বিরোধিতা করেছে। হামাস বলেছে, ট্রাম্প বাইতুল মোকাদ্দাসকে দখলদার ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে ফিলিস্তিনি জাতির প্রতি প্রকাশ্য শত্রুতা শুরু করেছেন। ট্রাম্পের এই ঘোষণার বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানানোর জন্য ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে হামাস। ফিলিস্তিনের আরেকটি প্রতিরোধ আন্দোলন ইসলামি জিহাদ বলেছে, এই ঘোষণার মধ্যদিয়ে মুসলমানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের উপ মহাসচিব জিহাদ নাখালা ট্রাম্পের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

ফিলিস্তিন স্বশাসন কর্তৃপক্ষের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসও ট্রাম্পের ঘোষণার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন,  এ ধরনের ঘোষণা দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ফিলিস্তিনের ইতিহাস পাল্টে দিতে পারবেন না। আন্তর্জাতিক সমাজে ট্রাম্পের এ স্বীকৃতির কোনো গ্রহণযোগ্যতা নেই বলে তিনি উল্লেখ করেন। এ ছাড়া, মিশর, তুরস্ক, লেবানন, সিরিয়া ও পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা আলাদা আলাদা বিবৃতিতে ট্রাম্পের ঘোষণার নিন্দা জানিয়ে তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। সূত্র : আল আরাবিয়া, জিও নিউজ, ডন।