সাভারের দুই অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কে তথ্য কমিশনে তলব

সাভার প্রতিনিধি : তথ্য অধিকার আইন অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময়ে তথ্য সরবরাহ না করায় সাভারের দুই ওসিকে তথ্য কমিশন তলব করেছে। কমিশনের গবেষণা কর্মকর্তা রাবেয়া হেনার স্বাক্ষরিত পৃথক দুটি সমন জারির মাধ্যমে অভিযোগকারী, দুই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কে সমন জারি করা হয়।

জানা যায়,অভিযোগকারী দৈনিক আমাদের অর্থনীতির সাংবাদিক মতিউর রহমান ‘তথ্য অধিকার আইনে’ পুলিশের সরেজমিনে তদন্তকরা একটি প্রতিবেদনের ফটোকপি চেয়ে গত জুন মাসের ৪ তারিখে অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাভার ও দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (আরটিআই) এর বরাবরে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে আবেদন করেন।

নির্দিষ্ট সময়ে তথ্য সরবরাহ না করায় আইন অনুযায়ী পুলিশ সুপার ঢাকা বরাবরে আপিল করা হয়। তাতেও প্রতিকার না পেয়ে তথ্য কমিশনে গত ২৪ অক্টোবরে তিনি অভিযোগ করেন।

অপরদিকে, ২০১৫-১৬ ও ১৭ সালের আগস্ট মাস পর্যন্ত জব্দকৃত ইজিবাইক, ব্যাটারি চালিত রিক্সা ও ব্যাটারির সংখ্যাসহ সংশ্লিষ্ট কিছু তথ্য চেয়ে অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাভার হাইওয়ে থানা ও দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (আরটিআই) এর বরাবর রেজিস্ট্রি ডাক যোগে আবেদন করা হয়।

নির্দিষ্ট সময়ে তথ্য সরবরাহ না করায় আইন অনুযায়ী পুলিশ সুপার হাইওয়ে গাজীপুর বরাবরে আপিল করা হয়। তাতেও প্রতিকার না পেয়ে তথ্য কমিশনে গত ২০ অক্টোবর অভিযোগ করা হয়।

অভিযোগ দুটি আমলে নিয়ে বিষয়টি নিস্পত্তির লক্ষ্যে আগামি ১৪ ডিসেম্বর সাভার মডেল থানা ও ১০ ডিসেম্বর সাভার হাইওয়ে থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসিকে তথ্য কমিশনে শুনানিতে অংশগ্রহণ করার নির্দেশ দিয়েছেন।

সেই সাথে অভিযোগকারী সাংবাদিক মতিউর রহমানকে জবাব দাখিল এবং শুনানিতে অংশগ্রহণ করার জন্য সমন জারি করা হয়।