সুস্থতা ও ত্বকের যত্নে গাজর

নাসরিন বৃষ্টি: সুস্থ থাকলে নিয়মিত গাজর খাওয়ার বিকল্প নেই। সুস্বাদু গাজর পুষ্টিগুণে ঠাসা। চোখের খেয়াল রাখতে নিয়মিত ভিটামিন এ খান। আর এই ভিটামিন এ-এর ভরপুর যোগান দেবে গাজর। তাই, প্রতিদিন নিয়ম করে এক গ্লাস গাজরের রস পান করতে পারেন। গাজরের আছে নানাবিধ উপকার।এটি আপনাকে উপহার দেবে সুন্দর ত্বক থেকে শুরু করে ক্যান্সারের থেকে সুরক্ষাও।
আসুন জেনে নেই একটি গাজর থেকে আপনি কী কী উপকার পাবেন-

* দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়: গাজর চোখের  দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়। এতে আছে বিটা ক্যারোটিন যা আমাদের লিভারে গিয়ে ভিটামিন এ তে বদলে যায়। পরে সেটি চোখের রেটিনায় গিয়ে চোখের দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে, সেই সাথে রাতের বেলায় অন্ধকারেও চোখে ভাল দেখার জন্য দরকারি এমন এক ধরনের বেগুনি পিগমেন্টের সংখ্যা বাড়িয়ে দৃষ্টিশক্তি ভাল রাখতে সাহায্য করে।

* ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়: গাজর খেলে ক্যান্সারের ঝুঁকি কম থাকে। গাজরে আছে ফ্যালকেরিনল এবং ফ্যালকেরিনডায়ল যা আমাদের শরীরে অ্যান্টিক্যান্সার উপাদানগুলোকে পূর্ণ করে। তাই গাজর খেলে ব্রেস্ট, কোলন, ফুসফুসের ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি অনেকটাই কমে যায়।

* রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে গাজরের জুড়ি নেই। গাজরে থাকা ভিটামিন বিভিন্ন সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমায়। বিশেষ করে, শীতকালে সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকাংশেই কমিয়ে দেয় এই উপকারী সবজিটি।

* হার্ট সুস্থ রাখতে: ১০০ গ্রাম গাজর থাকে দিনের চাহিদার প্রায় ৩৩ শতাংশ ভিটামিন এ, ৯ শতাংশ ভিটামিন সি এবং ৫ শতাংশ বি৬। সেই সঙ্গে থাকে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। এই সবকটি উপাদান হার্টের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে গাজর।

* ত্বকের যত্নে: শীতকাল মানেই খসখসে ত্বক। এ সময় নিয়মিত গাজর খেলে ত্বক উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত থাকে। গাজরে থাকা একাধিক ভিটামিন এবং মিনারেল ত্বকের রুক্ষতা ও বলিরেখা দূর করতে কার্যকর।

* সুন্দর  ও সুস্থ সবল দাঁতের জন্য: সুন্দর  ও সুস্থ সবল দাঁতের জন্য গাজরের জুড়ি মেলা ভার। গাজর আপনার দাঁত ও মুখের ভেতর পরিষ্কার রাখে। গাজরের মিনারেলগুলো দাঁত মজবুত রাখতে সাহায্য করে।

একটু ভালো থাকার জন্য আমরা কত কিছুই না করি। তাই, সুস্থ ও ভালো থাকার জন্য আমাদের নিয়মিত গাজর খাওয়া উচিত।