ইয়েমেনে হুথিদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা সাবেক প্রেসিডেন্ট সালেহি বাহিনীর

সাইদুর রহমান : ইয়েমেনের সাবেক প্রেসিডেন্ট আলী আব্দুল্লাহ সালেহিকে হটিয়ে ইয়েমেনের রাজধানী সানা’ দখল করে নেওয়া হুথি মিলিশিয়াদের বিরুদ্ধে এবার অভ্যূত্থান ঘোষণা দিয়েছে সালেহি সমর্থিত জাতীয় কংগ্রেস পার্টির যোদ্ধারা। এবং ইতিমধ্যেই সালেহি যোদ্ধারা ঘোরতর লড়াইয়ের পর রাজধানী সানা’র অর্থমন্ত্রণালয়ের ভবনসমূহ, কাষ্টমস হাউস এবং হুদিদের প্রচার ষ্টেশন দখলে নিয়েছে। এদিকে হুথিদের বিরুদ্ধে সালেহি বাহিনীর আকষ্মিক এ বিদ্রোহ ঘোষণাকে সাধুবাদ জানিয়েছে ইয়েমেনে যুদ্ধরত সৌদি জোট। খবর আল-জাজিরা, আল-আরাবিয়্যাহ, আনাদোলু এজেন্সি , খালিজ অনলাইন
রাজধানী সানাতে লড়াইরত সালেহি বাহিনীর সাথে সংঘর্ষে বিদ্রোহী হুথিদের কমপক্ষে ৮০ জনকে হত্যার দাবি করেছে সালেহি সমর্থিত বাহিনী।

রাজধানী সানায় সংঘর্ষ শুরুর পর এই প্রথম জনসম্মুখে এক বিবৃতি দেন সাবেক প্রেসিডেন্ট সালেহি। বিবৃতিতে সালেহি বলেন, হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে জাতীয় ও সামাজিক ঐক্য গঠনের পাশাপাশি হুথিদের বিরুদ্ধে নতুন অভিযানের আহ্বান জানিয়েছেন।
জাতীয় কংগ্রেস পার্টি হুথি নিয়ন্ত্রিত রাষ্ট্রীয় সকল প্রতিষ্ঠানগুলোতে হুথিদের সামনে নমনীয়তা প্রদর্শন এবং তাদের অনুগত হতে নিষেধ করে। এবং সারা দেশের জনগণকে দেশরক্ষার্থে হুথিদের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষা লড়াইয়ে নামার আহ্বান জানায়।
জাতীয় কংগ্রেস পার্টি আরও জানিয়েছে, তারা (হুথিরা) জনগণের উপর জুলুম নির্যাতনের কারণে দেশে গৃহযুদ্ধে লেগে গেছে। দরিদ্রতা, মহামারি সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

অপর দিকে হুথি মুখপাত্র এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আলি আব্দুল্লাহ সালেহকে হত্যা পরিকল্পনা ইতিমধ্যেই নেয়া হয়েছে। এবং সালেহি সমর্থিত সেনাপ্রধানের বাড়ির চারজন নিরাপত্তারক্ষীকে হত্যা করা হয়েছে।

সৌদি জোট সালেহি সমর্থিত বাহিনীর এ পদক্ষেপকে মোবারকবাদ জানিয়ে এক বিবৃতি দিয়েছে। বিবৃতিতে জোট বলেছে, জাতীয় কংগ্রেস পার্টির এ পদক্ষেপ ইয়েমেনকে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসী মিলিশিয়াদের অনিষ্টতা থেকে রক্ষা করবে।

সানায় সৌদি রাষ্ট্রদূত মুহাম্মাদ আল জাবের এই প্রথম এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, সানা’ এখন ইরান সমর্থিত হুথি মিলিশিয়াদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে।
উল্লেখ্য, রাজধানী সানাসহ হুথি নিয়ন্ত্রিত বিভিন্ন শহরে নতুন করে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়েছে। সালেহি পন্থিদের সাথে হুথিদের সংলাপ ব্যর্থ হওয়ার পরেই এ সংঘর্ষ শুরু হয়। সূত্র : আল-জাজিরা, আল-আরাবিয়্যাহ, আনাদোলু এজেন্সি , খালিজ অনলাইন