শীতে চুল ঘন ও ঝলমলে করার উপায়

নাসরিন বৃষ্টি:  ঘন আর সুন্দর চুলের আকাঙ্ক্ষা থাকে সবারই। শীত আসলেই বেড়ে যায় চুল পড়ার সমস্যা। চুল ঝরতে ঝরতে পাতলা হয়ে গেলে ঘরোয়া উপায়ে যত্ন নিতে পারেন চুলের। চুলের যত্নে প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করলে চুল ঘন ও ঝলমলে হওয়ার পাশাপাশি বন্ধ হবে চুল পড়া। কিছু সহজ উপায় রয়েছে যার মাধ্যমে চুল সহজেই ঘন ও ঝলমলে করে তোলা সম্ভব। চলুন তবে জেনে নেই-

#মেথি: চুল ঘন করার পাশাপাশি চুল পড়া বন্ধ করতেও জুড়ি নেই মেথির। ২ থেকে ৩ টেবিল চামচ মেথি পানিতে ভিজিয়ে রাখুন সারারাত। পরদিন মেথির পেস্ট তৈরি করে নিন। ২ চা চামচ নারকেলের দুধ মিশিয়ে নিন পেস্টে। চুলের আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত পেস্টটি লাগান। ৩০ মিনিট পর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন চুল। সপ্তাহে একদিন এই হেয়ার প্যাক ব্যবহার করুন। চুলের রুক্ষতা দূর হবে এবং চুলকে ঘন ও ঝলমলে করে তুলবে।

#ক্যাস্টর অয়েল: নিয়মিত ক্যাস্টর অয়েল ম্যাসাজ করুন চুলের গোড়ায়। ক্যাস্টর অয়েলে আছে ভিটামিন ই ও ফ্যাটি অ্যাসিড। এই দুই উপাদান চুল পড়া বন্ধ করার পাশাপাশি ঘন করে চুল। সমপরিমাণ নারকেল তেল ও ক্যাস্টর অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে সামান্য গরম করে নিন। চুলের গোড়ায় তেলের মিশ্রণ ঘষে ঘষে লাগান। চুলেও ব্যবহার করুন। চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ে গরম টাওয়েল দিয়ে চুল ঢেকে রাখুন। ১ ঘণ্টা পর শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন চুল। সপ্তাহে একবার এভাবে ব্যবহার করুন ক্যাস্টর অয়েল। চুল হবে ঘন ও ঝলমলে।

#মেহেদি: ঘন, কালো ও ঝলমলে চুলের জন্য মেহেদি ব্যবহার করতে পারেন। মেহেদির পেস্ট তৈরি করে প্রয়োজন মতো দই মিশিয়ে নিন। গ্রিন টির লিকার ও তেল মেশান। সারারাত এভাবে রেখে দিন। পরদিন একটি ডিম ও ২ চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নেড়ে নিন। মেহেদির মিশ্রণ চুলে লাগিয়ে রাখুন না শুকানো পর্যন্ত। শুকিয়ে গেলে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন চুল।

#ডিম: ডিম হচ্ছে প্রাকৃতিক প্রোটিন, যা চুলকে ঘন করতে সাহায্য করে। একটি ডিমের সাদা অংশ নিয়ে ভালো ভাবে ফেটিয়ে নিতে হবে। তারপর পরিষ্কার চুলে সরাসরি হাত অথবা ব্রাশের সাহায্যে ওপর থেকে নিচ পর্যন্ত লাগাতে হবে। ডিম দিতে গেলে অনেকে চুল জট বেঁধে এলোমেলো হয়ে যায় বলে এড়িয়ে যান। চুলে ডিমের সাদা অংশ লাগানোর পর একটি মোটা  দাঁতের চিরুনির সাহায্যে সাবধানে চুল আঁচড়ে নিন। তারপর হালকা ঝুটি করে নিন বা শাওয়ার ক্যাপ পরে নিন। ২০-৩০ মিনিট রেখে নরমাল পানিতে চুল ধুয়ে নিন এবং শ্যাম্পু করুন। যেদিন ডিম দেবেন সেদিন আর আলাদা করে কন্ডিশনার দেবার প্রয়োজন হবেনা।

#পেঁয়াজ: যেসব জায়গায় চুল বেশি পাতলা, পেঁয়াজ কেটে ঘষলে সেই অঞ্চলের ব্লাড সার্কুলেশন বাড়ে, ফলে তা নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। আপনার হেয়ার ফলিকল এর কোনও অংশ ক্ষতিগ্রস্ত থাকলে নিয়মিত ব্যবহারে তা সারিয়ে তোলে। যাদের চুল পাতলা তারা সপ্তাহে ২-৩ দিন ১০-১২ মিনিটের জন্য মাথার তালুতে পেঁয়াজ ঘষে ব্যবহার করলে কিছুদিনের মধ্যেই ফল পাবেন।

# অ্যালোভেরা জেল: অ্যালোভেরার জেল বের করে নিন, ৪ চামচ মধুর সাথে মিক্স করে সরাসরি চুলে এবং মাথার তালুতে লাগিয়ে ফেলুন। চাইলে এর সাথে কোনও ট্রিটমেন্ট ক্রিমও যোগ করতে পারেন। চুল ঘন করার সাথে সাথে এটি আপনার চুলের আগা ফেটে যাওয়া রোধ করবে।