পুলিশের প্রাথমিক তদন্ত
সিজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্ত ছিলেন নিজ গুলিতে নিহত সাবেক সচিবের স্ত্রী

রিকু আমির : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব মাহবুব রেজা খানের স্ত্রী সিজোফ্রেনিয়া নামক মানসিক রোগে আক্রান্ত ছিলেন। যার প্রভাবে স্বামীর লাইসেন্স করা পিস্তল দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন মাহবুব সোফিয়া খান বলে পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে বেরিয়েছে।

গত ২৯ অক্টোবর গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ইন্দিরা রোডের ৮১/৪ নম্বর বাড়ি থেকে সোফিয়ার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ বাসার তৃতীয় তলায় স্বামী ও দুই মেয়ের সঙ্গে বসবাস করতেন তিনি।
বুকে গুলিবিদ্ধ সোফিয়াকে স্কয়ার হাসপাতালে নেবার পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন পুলিশের হাতে এখনও আসেনি। এটা না পেয়ে চূড়ান্ত মন্তব্যে রাজি নয় পুলিশ।

নাম না প্রকাশের শর্তে শেরে বাংলা নগর থানা পুলিশের একজন কর্মকর্তা এ প্রতিবেদকের প্রশ্নে বলেন, সোফিয়া ১৯৯৭ সাল থেকে সিজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্ত। এ সম্পর্কিত চিকিৎসার নথিপত্র পাওয়া গেছে। লন্ডনেও তিনি চিকিৎসা গ্রহণ করেছেন। ঢাকায় আবদুল বারী নামের একজন মানসিক চিকিৎসকের কাছ থেকেও তিনি চিকিৎসা গ্রহণ করেন বলে নথিপত্র পাওয়া যায়।

জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ এ প্রতিবেদকের প্রশ্নে বলেন, যেসব মানসিক রোগের কারণে মানুষ আত্মহত্যা প্রবণ হয়ে উঠে, তার মধ্যে সিজোফ্রেনিয়া অন্যতম।

সোফিয়ার বাসার রুম ৫টি। এক রুমে থাকতেন স্বামী-স্ত্রী। আরেক রুমে প্রাপ্ত বয়স্ক দুই মেয়ে। পাঁচটি রুমই অগোছালো করে রাখতেন সোফিয়া, কাউকে গোছাতেও দিতেন না। নিজ বেডরুমে শপিং ব্যাগসহ নানা ধরণের জিনিসপত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে, স্তুপ করে, তাক্ ধরিয়ে রাখতেন বলে পুলিশের কাছ থেকে জানা যায়।

অধ্যাপক ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ এ প্রতিবেদকের প্রশ্নে বলেন, এ ধরণের লক্ষণ সিজোফ্রেনিয়া রোগীদের ক্ষেত্রে প্রকাশ পায়। তারা কোনো জিনিসপত্র না ফেলে জমিয়ে রাখে।
৫০ বছর বয়স্ক সোফিয়ার স্বামী মাহমুদ রেজা খান অবসরোত্তর ছুটিতে আছেন। তার বাড়ি শরীয়তপুরে।