সৌদি মরুভূমিতে রহস্যময় ৪০০ পাথরের অবকাঠামোর সন্ধান

রাশিদ রিয়াজ : আগ্নেয়গিরি যুগের রহস্যময় ৪০০ পাথরের প্রাচীন দরজার সন্ধান মিলেছে সৌদি মরুভূমিতে। প্রতœতত্ত্ববিদরা এখনো এসব প্রাচীন নিদর্শন সম্পর্কে কোনো পরিস্কার ধারণা দিতে পারছেন না। বলতেও পারছেন না কেন এসব দরজা তৈরি করা হয়েছিল।

সৌদি আরবের হেরাত খায়বার অঞ্চলে এসব স্থাপনার ছবি তোলা হয়েছে গুগুল আর্থ থেকে কারণ সেখানে প্রবেশে বিধি নিষেধ রয়েছে। ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ডেভিড কেনেডি এসব প্রাচীন স্থাপনার ওপর দিয়ে উড়ে যাবার বিশেষ অনুমতি পান। পাথরের ওই দরজাগুলো ১৭’শ ফুট পর্যন্ত লম্বা এবং হাজার হাজার বছরের পুরোনো। এসব স্থাপনার বেশ কয়েকটি যে দরজা হিসেবে ব্যবহার হত তা বোঝা যায় বিস্তীর্ণ মরুভূমির ময়দানের একটু উপরে স্থাপিত রয়েছে বলে।

৫০’এর দশকের শুরুতে এসব স্থাপনা নিয়ে গবেষণায় বাধা ছিল। তবে জ্যামিতিক আকার থেকে  প্রত্নতত্ত্ববিদরা বলছেন কম করে হলেও ৭ হাজার বছর আগে এসব পাথুরে অবকাঠামো নির্মাণ করা হয়। ড. ডেভিড কেনেডি কুড়ি বছর ধরে গবেষণা করার পর বলছেন, এধরনের পাথরের অবকাঠামো গুলোর ‘ওয়ার্কস অব দি ওল্ড মেন’ নামকরণ করে বেদুইন সম্প্রদায়। সৌদি কর্তৃপক্ষ এই প্রথম ডেভিডকে ওসব স্থাপনার ওপর দিয়ে উড়ে ছবি তোলার অনুমতি দেয়।

তবে দরজা ছাড়াও চাবির গর্ত, ঘুড়ি, দুল আকৃতির বিভিন্ন পাথুরে অবকাঠামোর ঠিক ব্যাখ্যা এখনো পাওয়া যায়নি। কিছু অবকাঠামো এতটাই বড় যে একমাত্র উপর থেকে দেখলে এগুলোর আকৃতি বোঝা যায়। ডেইলি মেইল