রাজনৈতিক দাবিতে পাঠ্যপুস্তক পরিবর্তন উদ্বেগজনক: ইফতেখারুজ্জামান

নাসরিন বৃষ্টি: টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেছেন, বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রাঙ্গণে বিভাজনের প্রতিফলন সব ক্ষেত্রেই ঘটে। তা পাঠ্যপুস্তকের ক্ষেত্রেও ঘটেছে। উগ্র-সাম্প্রদায়িক দাবির পরিপ্রেক্ষিতে পাঠ্যপুস্তকে বেশ কিছু মৌলিক পরিবর্তন হয়, যা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। সূত্র- বিবিসি বাংলা।

বিভিন্ন সময় রাজনৈতিক ক্ষমতার রদবদলে পাঠ্যপুস্তক পরিবর্তন প্রসঙ্গে বিবিসি বাংলার এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। পাঠ্যপুস্তকের এই পরিবর্তন নিয়ে আজ একটি গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করার কথা রয়েছে দুনীর্তি বিরোধী আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের ।

গবেষণা প্রতিবেদন সম্পর্কে ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, আমরা দুটি কার্যক্রমের মাধ্যমে কাজটি করে থাকি। একটি হচ্ছে, পান্ডুলিপি তোলা ও অন্যটি প্রকাশ। এনসিটিবি স্বায়ত্তশাসিত হওয়ার কথা সত্ত্বেও স্বায়িত্তশাসিতের উপাদানগুলো প্রতিষ্ঠানটিতে অনুপস্থিত। প্রতিষ্ঠানটির সার্বিক কার্যক্রম সরকারি নির্দেশে পরিচালিত হওয়ায় সেটি নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে পারে না।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে ওঠার কথা থাকলেও সেটি কোথায় আটকে আছে?

তিনি বলেন, কোনো বিধিমালা প্রণীত না হবার ফলে সরকারি নির্দেশে প্রতিষ্ঠানটি চলে।

প্রতিষ্ঠানটিতে বর্তমানে যে বাস্তবতা বিরাজ করছে তার অবসান করতে কী সুপারিশ করবেন?

জবাবে তিনি বলেন, মৌলিক সুপারিশ হচ্ছে, প্রতিষ্ঠানটি একটা কমিশনের আওতায় আনতে। এটি নির্ধারণ করার জন্য শিক্ষা খাতে যেসব বিশেষজ্ঞরা রয়েছেন তাদের সহযোগে একটি কমিটি গঠন করে কীভাবে কমিশন গঠিত হবে, কীভাবে প্রক্রিয়া চলবে সে অনুসারে একটি মডেল তৈরি করতে হবে। যতদিন পর্যন্ত এই কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে না সমস্যা থেকেও উত্তরণ পাওয়া সম্ভব নয়।

সুমন/আনিস