বাংলাদেশের প্রথম কাউন্সিলরের ফেসবুক পেজ ভেরিফাইড!

নিজস্ব প্রতিবেদক : তারেকুজ্জামান রাজিব। ঢাকা মহানগর উত্তরের ৩৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় এ জনপ্রতিনিধির অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ ভেরিফাইড করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। জানা গেছে, বাংলাদেশের ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের মধ্যে এই কাউন্সিলরের ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজ প্রথম ভেরিফাইড হয়েছে। তৃণমুলে এই প্রথম কোনো জনপ্রতিনিধির ফেসবুক পেজ ভেরিফাইড হয়।

শুভাকাঙ্ক্ষীদের ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়ে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের ৯২টি ওয়ার্ডের মধ্যে সবচাইতে তরুণ এ কাউন্সিলর নিজের ভেরিফাইড পেজে দেওয়া এক পোস্টে লিখেছেন, ‘প্রথম ওয়ার্ড কাউন্সিলর হিসেবে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আমার পেইজটি ভেরিফাইড করলো। এজন্য আমার বন্ধু, শুভাকাঙ্ক্ষীদের ধন্যবাদ ও অভিনন্দন। যারা আমাকে ভালবাসেন, যাদের অনেককে আমি কখনো দেখিনি কিন্তু তারা নিঃশর্তভাবে আমাকে ভালবেসেছেন। তাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞা প্রকাশ করছি।’

তারেকুজ্জামান রাজীবের পেজটিতে বর্তমানে ৫১ হাজারের উপরে লাইক পড়েছে। ফেসবুক পেজের মাধ্যমে রাজিব তার ওয়ার্ডের বিভিন্ন সামাজিক, উন্নয়ন, রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন। পেজের অ্যাডমিন সূত্র জানায়, এলাকাবাসী কেউ কাউন্সিলরের ব্যক্তিগত প্রোফাইলে বা ফেসবুক পেজে কোন সমস্যার কথা জানালে কমিশনার সেগুলোর নোট রাখেন এবং গুরুত্বের ভিত্তিতে ধারাবাহিকভাবে সমাধানের চেষ্টা করেন।

ছাত্র রাজনীতি থেকেই মূল ধারার রাজনীতিতে আসা তরুণ কাউন্সিলর রাজিব বর্তমানে জনপ্রতিনিধি হয়ে হাল ধরেছেন মোহাম্মদপুরের বসিলা, ওয়াশপুর, কাটাসুর, গ্রাফিক্স আর্টস ও শারীরিক শিক্ষা কলেজ, মোহাম্মদদিয়া হাউজিং সোসাইটি এবং বাঁশবাড়ী এলাকার। ২০১৫ সালের কাউন্সিলর নির্বাচনে তিনি ছিলেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ বজলুর রহমানকে তিন হাজার ভোটের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত করেছেন।

দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই তিনি নানাভাবে এলাকার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। রাজিবের ভক্ত সমর্থকরা জানান, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে এগিয়ে থাকা তারেকুজ্জামান রাজীব ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভূমিকা রাখছেন।