জাপানের এক দ্বীপে মানুষের চেয়ে পুতুল বেশি

মরিয়ম চম্পা : অপ্রিয় হলেও সত্য যে জাপানের একটি দ্বীপে মানুষের তুলনায় পুতুলের সংখ্যাই বেশি। জনসংখ্যার ঘাটতি পূরণের বিকল্প হিসেবে প্রত্যেক মৃত ব্যক্তির স্থানে এক একটি পুতুল তৈরি করা হয়। ধীরে ধীরে ওই দ্বীপে এখন মানুষের সংখ্যাকে ছাড়িয়ে গেছে পুতুল। অবশ্য নিকোকু নামের ছোট্ট ওই গ্রামটি এখন প্রায় জনশূন্য হওয়ার পথে।

ন্যাশনাল জিওগ্রাফির তথ্যানুযায়ী, মাত্র ৩৫ জন বাসিন্দার বসবাস ওই দ্বীপে। জাপানের বিখ্যাত শিল্পী তিছুকিমি এ্যনো প্রায় ৬৭টি পরিত্যাক্ত বাড়ি আবিষ্কার করেছেন যেখানে শুধুমাত্র পুতুল রয়েছে।

এ্যনো বলেন, আমার বাবা মারা যাওয়ার পর তার শরীরের আদলে একটি কঙ্কাল তৈরি করতে চেয়েছিলাম। যে কঙ্কালটি মানুষের মত অনেক সাজানো ও পরিপাটি থাকবে। দ্বীপটির বাসিন্দারা প্রতিদিন সকালে উঠে সুপ্রভাত বলে পুতুলের সাথে কথপোকথন শুরু করে।

ভ্যালি অব দ্য ডল নামে একটি ডকুমেন্ট্রি সাক্ষাৎকারে এনো বলেন, পুতুল গুলো তৈরির পর মনে হয় ওরা প্রত্যেকেই জীবন্ত। যেগুলোকে আমার বাচ্চার মত মনে হয়। দ্য ডেইলি কলার