ইউনেস্কো থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিলো যুক্তরাষ্ট্র

মাহাদী আহমেদ : জাতিসংঘের সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ‘ইউনাইটেড নেশন্স সায়েন্টিফিক এন্ড কালচারাল অর্গাইনাইজেশন’ সংক্ষেপে-ইউনেস্কো থেকে নাম প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রসাশন এক সংবাদ বিবৃতির মাধ্যমে এই সিদ্ধান্তের কথা জানায়। এই সিদ্ধান্তের পেছনে যুক্তরাষ্ট্র ইউনেস্কো কর্তৃপক্ষের ‘ইসরায়েল বিরোধী’ মনোভাবকে দায়ী করে।

যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র হিদার নুয়ের্ট বলেন, প্যারিস ভিত্তিক সংস্থাটিতে ওয়াশিংটন একটি পর্যবেক্ষক মিশন স্থাপন করবে এবং এর মাধ্যমে ইউনেস্কোতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিকে বাদ দেওয়া হবে।

২০১১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র দেশ ইসরায়েলের ব্যাপক আপত্তি স্বত্তেও ফিলিস্তিন’কে পূর্ণ সদস্যদেশ হিসেবে গ্রহণ করায় ইউনেস্কোর ওপর বেশ ক্ষীপ্ত ছিলো যুক্তরাষ্ট্র।

জাতিসংঘের কোনও সংস্থা কর্তৃক ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার ক্ষেত্রে নেওয়া যে কোনও ধরনের পদক্ষেপের বিরুদ্ধে প্রবল অবস্থান যুক্তরাষ্ট্রের। যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বাস করে এটা কেবল মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি চুক্তির মাধ্যমেই সম্ভব।

ইউনেস্কো জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের বেরিয়ে যাওয়া জাতিসংঘ পরিবার ও জোটের জন্য ক্ষতিকর ও দু:খ জনক।
ইউনেস্কো বিশ্বের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানকে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে ঘোষণা করে। যেমন- সিরিয়ার পালমিরা ও যুক্তরাষ্ট্রের গ্র্যান্ড ক্যানিয়ন।
চলতি বছর মে মাসে ইউনেস্কোর নির্বাহী পরিষদে অনুমোদন পাওয়া এক প্রস্তাবে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে জেরুজালেমের স্বাতন্ত্রতা ক্ষুণœ করার অভিযোগ আনা হয়েছে। ওই প্রস্তাব অনুযায়ী,জেরুজালেমের ইতিহাস-ঐতিহ্য-সংস্কৃতিকে ধ্বংসের পথে ঠেলছে জায়নবাদী ওই দেশ। প্রস্তাবে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে অনৈতিকভাবে জেরুজালেম ও গাজা অধিগ্রহণ করে রাখার অভিযোগ তোলা হয়েছে।
ইউনেস্কোর নির্বাহী বোর্ডে পাস হওয়া ওই প্রস্তাবকে ‘আন্তর্জাতিক আইনের জয়’ বলে উল্লেখ করেছেন ফিলিস্তিনি নেতারা। বিপরীতে ইসরায়েল বলছে, এটি ‘ইউনেস্কোর অপ্রয়োজনীয় রাজনৈতিক’ কর্মকা-। সূত্র: বিবিসি/এএফপি