যৌন নিপীড়নের অভিযোগে অস্কার থেকে বাদ পড়ছেন হার্ভে উইনস্টেইন

ফারিহা : মার্কিন চলচ্চিত্র প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেইনের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠায় তার ভবিষ্যত নির্ধারণে বৈঠকে বসতে যাচ্ছে অস্কার পুরষ্কার প্রদানকারী সংস্থা দ্য ইউএস অ্যাকাডেমি।

ইতোমধ্যেই মিরাম্যাক্স এবং উইনস্টেইন কোম্পানি ৮১টি অস্কার পুরস্কার পেয়েছে। কিন্তু যৌন নিপীড়নের অভিযোগের প্রেক্ষাপটে এ নিয়ে নতুন করে সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে বলে বুধবার জানায় সংস্থাটি।
২০১৫ সালে এক নারী হার্ভে উইনস্টেনের বিরুদ্ধে যৌন অভিযোগ করলেও তখন কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি এবং এ নিয়ে নিজেদের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেছেন আইনজীবীরা।
তারা বলছেন, উইনস্টেনের বিরুদ্ধে অভিযোগের যথেষ্ট প্রমাণাদি তারা পাননি, ফলে তাকে অপরাধীও বলা সম্ভব হয়নি।
তবে তারা এটাও বলছেন যে, অস্কারজয়ী এই প্রযোজকের ‘নারীদের সঙ্গে অশালীন ব্যবহারের উদাহরণ রয়েছে’।
হার্ভে উইনস্টেন বলছেন, তার বিরুদ্ধে আনা বেশিরভাগ অভিযোগই মিথ্যা।
সম্প্রতি এই মার্কিন প্রযোজকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন হলিউডের তিন অভিনেত্রী।
বিবিসি বাংলার খবরে বলা হয়েছে, ৬৫ বছর বয়সী এই প্রযোজকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন হলিউডের জনপ্রিয় তারকা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও গিনেথ প্যালট্রো।
নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকায় এক লিখিত বিবৃতিতে হার্ভে উইনস্টেনের বিরুদ্ধে নিজেদের অভিযোগের কথা জানিয়েছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও গিনেথ প্যালট্রো।
১৯৯৬ সালে মুক্তি পাওয়া ‘এমা’ সিনেমার প্রযোজক ছিলেন হার্ভে উইনস্টেইন। ছবির প্রধান চরিত্র জেন অস্টেনের ভূমিকায় কাজ করেন গিনেথ প্যালট্রো।
মিস প্যালট্রো তার দেওয়া বিবৃতিতে জানান, একবার নিজের হোটেল রুমে তাকে ডেকে পাঠিয়েছিলেন হার্ভে উইনস্টেন। সে সময় তার দেহে আপত্তিকরভাবে স্পর্শ করেন উইনস্টেন এবং মিস প্যালট্রোকে কুপ্রস্তাব দেন।
গিনেথ প্যালট্রো তখন হলিউডের কম বয়সী এক উঠতি তারকা। ‘আমার বয়স তখন খুব বেশি নয়। এরপর আবার হার্ভে উইনস্টেইনের ছবিতেই চুক্তিবদ্ধ হয়েছি, সেদিনের ঘটনায় আমি খুব ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। আমার বয়ফ্রেন্ড ব্র্যাড পিটকে এ কথা বলেছিলাম, সে তখন প্রযোজকের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিল। আমার মনে হচ্ছিল উইনেস্টেন আমাকে চুক্তি থেকে বাদ দিয়ে দেবে’।
অন্যদিকে অ্যাঞ্জেলিনা জোলি জানান, ১৯৯৮ সালে ‘হার্ট’ ছবিটির মুক্তির সময় হার্ভে উইনস্টেন তাকে হোটেল রুমে ডেকেছিলেন।
‘হার্ভে উইনস্টেইনের সঙ্গে কাজ করে আমার খুব খারাপ অভিজ্ঞতা হয়েছে। আর এ কারণে আমি এই প্রযোজকের সঙ্গে পরে আর কোনো কাজ করিনি, আমার অন্য নারী সহকর্মীদেরও এই বিষয়ে সতর্ক করে দিয়েছি’ বলেন তিনি।
‘নারীদের প্রতি এ ধরনের আচরণ মেনে নেওয়া যায় না, তা আপনি যেকোনো দেশে যেকোনো অবস্থানেই থাকুন না কেন’ বলেন জোলি।