প্রধান বিচারপতির সঙ্গে দেখা করতে চাই: মওদুদ

রাজু মণ্ডল : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, ‘দেশের সকল আইনজীবী দলমত নির্বিশেষে প্রধান বিচারপতির সাথে দেখা করতে চান। তার শারীরিক সুস্থ্যতা কামনা করতে চাই’।

বৃহস্পতিবার সকালে আপিল বিভাগের এক নম্বর আদালতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির কাছে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার অবস্থান জানতে চেয়ে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির এক আবেদনের সময় তিনি এসব কথা বলেন।

পরে ব্যারিস্টার মওদুদ সাংবাদিকদের বলেন, বর্তমানে যে সংকট তা কোনো রাজনৈতিক সংকট নয়। দেশের সকল আইনজীবী দলমত নির্বিশেষে প্রধান বিচারপতির (এসকে সিনহা) সাথে দেখা করতে চান। তার শারীরিক সুস্থ্যতা কামনা করতে চাই। সিনিয়র আইনজীবী নেতৃবৃন্দদের সঙ্গে আপিল বিভাগে গিয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির কাছে একথাগুলো বলেছি।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ব্যারিস্টার মইনুল ইসলাম বলেন, প্রধান বিচারপতির ছুটি নিয়ে দেশে অনেক আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে। অনেকে অনেক ধরনের কথা বলছেন। সেটি দেশের জন্য, সরকারের জন্য, বিচার বিভাগের জন্য ভালো না। তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতির বিষয়টি নিয়ে আদালতের কাছে সহযোগিতা চেয়েছি। সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রারের মাধ্যমে আমরা প্রধান বিচারপতির সাথে দেখা করতে চাই।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে আপিল বিভাগের এক নম্বর আদালতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির কাছে বর্তমান প্রধান বিচারপতির অবস্থা জানতে চেয়ে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি এক আবেদন জানায়। আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা তার নিজ বাসাতেই আছেন বলে জানিয়েছেন ভারপ্রপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞা।

বুধবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার শারীরিক অবস্থা এবং তার সম্পর্কে খোঁজ-খবর জানতে সিনিয়র আইনজীবীদের নিয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞার কাছে সাহায্য চাওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয় সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি। পরে বৃহস্পতিবার সকাল নয়টায় আপিল বিভাগে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির নিকট এ আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছিলেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদিন ছাড়াও এসময় উপস্থিত ছিলেন, জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, বিচারপতি খাদেমুল ইসলাম, বিচারপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী, অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, এজে মোহাম্মদ আলী প্রমুখ।