ব্রণ থেকে মুক্তি পেতে ৫ উপায় 

জাহিদ হাসান : প্রত্যেকেই জীবন উপভোগ করতে চায়। কিন্তু জীবন উপভোগ করতে গিয়ে কখনও কখনও ঝামেলায় পড়তে হয়। আর যার মধ্যে অন্যতম হলো ব্রণ। বয়ঃসন্ধি কালীন সময়ে অধিকাংশ ছেলে-মেয়েদের এ সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। ব্রণ খুবই বিরক্তিকর। মুখম-লে যখন তেল চিপচিপে ভাব হয় তখন ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণের ফলে ব্রণের তৈরি হয়। ফলে মুখম-লের উজ্জলতা ও সৌন্দার্য্য কমে যায়।

কে চায় না কোমল, সুন্দর ও পরিস্কার ত্বক পেতে? তবে পরিস্কার ও ব্রণ মুক্ত ত্বক পেতে ঘরোয়া কিছু পদ্ধতি অনুসরণ করলে এ সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। যারা ব্রণের সমস্যার ভুগছেন তাদের মনে সব সময় একটা প্রশ্ন উঁকি মারে। কীভাবে এ সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। খুব সহজেই এ সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। আসুন জেনে নিই ঘরোয়া পদ্ধতিতে ব্রণ থেকে মুক্তির উপায়।

০১. সরিয়া বীজ ব্রণ দূরীকরণে খুবই কার্যকর। কারণ সরিষা বীজে রয়েছে স্যালিলাইক এসিড, যা মুখম-লে ব্যাকটেরিয়া জমতে দেয় না। মুখম-লে ব্রণ হলে সরিয়া বীজ মধুর সাথে মিশিয়ে পেস্ট করে কটন দিয়ে ব্রণের উপর হালকা ভাবে লাগিয়ে দিন। এরপর ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

০২. ত্বকের যতেœ টমেটো সবচেয়ে ভাল ফল দেয়। কারণ টমেটোতে রয়েছে অ্যান্টিসেফটিক এসিড। পরিমান মতো টমেটো নিয়ে কুচি কুচি করে কিংবা জুস বানিয়ে মুখম-লে লাগিয়ে নিন। লাগানোর কিছুক্ষণ পরে পরিস্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

০৩. ব্রণ দূরীকরণে রসুন খুবই কার্যকরী। এছাড়া মুখম-লের উজ্জলতা বাড়াতে রসুন ব্যবহার করা হয়। পরিমান মতো রসুন নিয়ে পেস্ট করে ভালভাবে মুখম-লে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

০৪. ব্রণে দূরীকরণে ডিমের সাদা অংশ খুব কাজে আছে। ডিম ভেঙে কসুম ফেলে দিয়ে শুধু ডিমের পানি ব্যবহার করুন। এতে ভাল ফল পাওয়া যাবে।

০৫. এছাড়া ঘুমতে যাওয়া আগে তুলা ভিজিয়ে ব্রণের উপর রেখে দিলে আস্তে আস্তে কমে যায়।

মনে করি, উপরোক্ত পাঁচটি ঘরোয়া টোটকা আপনার ব্রণ দূর করতে খুবই কার্যকরী হবে। সম্ভব হলে প্রতিদিনই এগুলো ব্যবহার করুন। আশা করি ভাল ফল পাবেন। যদিও এগুলো আপনার কাছে বাজে হতে পারে কিন্তু কার্যকরী।