২০২৫ সালে দক্ষ ও দূরদর্শী নেতারাই বাংলাদেশ চালাবে: সৈয়দ আবুল মকসুদ

লিপি পারভীন: এখন থেকে ২০২৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের রাজনীতিতে কী হতে পারে? এই প্রশ্নের জবাবে বিশিষ্ট সাংবাদিক, কলামিস্ট, গবেষক ও লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ২০২৫ সালে বাংলাদেশ পরিচালিত হবে, দক্ষ ও দূরদর্শী সম্পন্ন নেতাদের দ্বারা। নতুন প্রজন্মের ভেতর থেকেই আসবে সেই নেতৃত্ব। ২০২৫ সাল নাগাদ শুধু বাংলাদেশে নয়, বিশ্ব রাজনৈতিক পরিস্থিতিতেই একটি ব্যাপক পরিবর্তন আসবে। সেই পরিবর্তনের সঙ্গে, সামঞ্জস্য রেখেই বাংলাদেশের রাজনীতি পুনর্গঠিত হবে।

বর্তমান রাজনৈতিক অবস্থা জনগণ বেশিদিন মেনে নেবে না। এইটুকু বলা যায়, ২০২৫ সাল নাগাদ বাংলাদেশে অবশ্যই নতুন রাজনৈতিক সংস্কৃতি দেখা যাবে। বাংলাদেশের মানুষ, দীর্ঘকাল গণতন্ত্রের জন্যে সংগ্রাম করেছে। সুতরাং আবারও প্রয়োজন হলে, বর্তমান নষ্ট রাজনৈতিক সংস্কৃতি বদলানোর জন্যে জনগণের ভেতর থেকেই উদ্যোগ গৃহীত হবে। গণতন্ত্রের জন্যে সংগ্রাম করতে করতেই এদেশের মানুষ মুক্তিযুদ্ধ করেছে। প্রয়োজন হলে, আগামী ৭/৮ বছরে গণতন্ত্রের জন্য বড় সংগ্রাম গড়ে তুলতে বাংলাদেশের মানুষ দ্বিধা করবে না।

তিনি আরো বলেন, আগামী কয়েক বছরের মধ্যে যে নতুন প্রজন্ম কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করবে, সেই প্রজন্মের মধ্যে দেশপ্রেমিক, জাতীয়তাবাদী ও বুদ্ধিদ্বীপ্ত তরুণ তরুণীরা প্রচলিত অবস্থাকে মেনে নেবে না। সারা পৃথিবীতেই এখন উঁচু মানের রাজনীতিবিদের অভাব। ট্রাম্পের মতো মানুষ এখন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট। পৃথিবীর বড় শক্তিগুলো ভেতর থেকে দুর্বল হয়ে আসছে। মধ্যম শ্রেণির রাষ্ট্রগুলোর উত্থানের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। বাংলাদেশের রাজনীতি যদি পুনর্গঠিত না হয়, তাহলে আমরা পিছিয়ে থাকবো। তাই পুরনো ধারার রাজনীতির পরিবর্তে নতুন ধারার গঠনমূলোক রাজনীতি কি আকার ধারন করবে, তা নিয়ে যুব সমাজকে ভাবতে হবে এবং প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে।

বাংলাদেশের মানুষ চায়, তার সম্পদের উপর তাদের পূর্ণ অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে। মানুষ চায় মাথা উঁচু করে বাঁচতে। যে নেতা সেই আকাক্সক্ষা বাস্তবায়ন করতে পারবেন, বাংলাদেশের মানুষ তাদেরকেই গ্রহণ করবে। দুর্বল নেতৃত্ব বাতিল হয়ে যাবে।