কক্সবাজারে বিএনপির ত্রাণবাহী ২২ ট্রাক আটকে দিয়েছে পুলিশ

মাঈন উদ্দিন আরিফ, কক্সবাজার উখিয়া থেকে: কক্সবাজারে পুলিশী বাধায় আটকে পড়েছে রোহিঙ্গাদের জন্য নেয়া বিএনপির ত্রাণবাহী ২২টি ট্রাক। উখিয়া-টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ত্রাণ বিতরণে অংশ নিতে মঙ্গলবার স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে কক্সবাজার পৌঁছে বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল। রাতভর ২২ টি ট্রাকে ত্রাণ সামগ্রী ভরে বিএনপি নেতাকর্মীরা। পরে ২২টি ত্রাণবাহী ট্রাক সকাল থেকে শহীদ মিনার রোডের বিএনপি কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয়। এর পর সকাল ১১ টার দিকে পুলিশের একটি দল ট্রাকগুলোর আশেপাশে অবস্থান নিয়েছে। পুলিশ ২২টি ট্রাকের চাবিও জব্দ করেছে।

জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ইউসুফ বদরী জানান, পুলিশ জানিয়েছে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া ত্রাণবাহী গাড়ি কোথাও যেতে পারবে না। এর পরই জেলা বিএনপি সভাপতি উখিয়া টেকনাফের সাবেক এমপি শাহজাহান চৌধুরী ও সদর আসনের সাবেক এমপি লূৎফর রহমান কাজল জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে গেলেও জেলা প্রশাসকসহ অন্যরা বাইরে থাকায় দেখা করা সম্ভব হয়নি। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় জেলা প্রশাসকসহ অন্যান্যা ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা বাইরে রয়েছেন।

নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) তাহমিলুর রহমান জানান, ব্যক্তি বিশেষের ব্যানারে ত্রাণ দেয়া যাবে না। যারা ত্রাণ দিতে চায় তাদের প্রশাসনের সঙ্গে সমন্বয় করে কেন্দ্রের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। তবে বিএনপির বিষয়টি আমি জানি না।

এদিকে ত্রাণবাহী ট্রাকের পাশে অবস্থান নেয়া পুলিশের এসআই আবুবকর জানান, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের লিখিত অনুমতি ছাড়া ত্রাণবাহী ট্রাকগুলো কোথাও যেতে না দিতে উপরের নির্দেশনা রয়েছে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামন দুদু বলেন, প্রশাসন আমাদের ত্রাণ নিয়ে যেতে দিচ্ছে না। আমাদের ২২ট্রাক মাল ছিল। যেখানে ৫০ হাজার পরিবারে ত্রাণ ছিল। যেটা আওয়ামী লীগ ১০ট্রাক ও নিতে পারেনি।

তিনি বলেন, এটা এ সরকারের ঘৃণ্য মনোভাব। রোহিঙ্গাদের ত্রাণ পর্যন্ত দিতে দেয় না আওয়ামী লীগ।