‘রোহিঙ্গার চাপ কমাতে ঢাকার পাশে থাকবে ইন্দোনেশিয়া’

নিজস্ব প্রতিবেদক: রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান এবং বাংলাদেশের ওপর থেকে নির্যাতিত এই জনগোষ্ঠীর চাপ কমাতে পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছে ইন্দোনেশিয়া। একই সঙ্গে মিয়ানমার সরকারের কাছে রাখাইনের এই মানবিক সংকট বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে দেশটি।

মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সফররত ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেতনো মারসুদি এ আশ্বাস দেন।

তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে ইন্দোনেশিয়া বাংলাদেশ সরকারের পাশে রয়েছে। আমি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে কার্টেসি কল পেয়ে সফরে এসেছি।’

রেতনো মারসুদি বলেন, ‘আমি বাংলাদেশের সরকারপ্রধানের সঙ্গে তিনটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি। মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা লাখ লাখ রোহিঙ্গাদের নিয়ে বাংলাদেশ সরকার যে সমস্যায় পড়েছে, সে বিষয়েও আলোচনা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের কারণে যে মানবিক সংকট তৈরি হয়েছে, সে বিষয়েও কথা হয়েছে। একই সঙ্গে সমস্যা থেকে কিভাবে উত্তরণ করা যায় তা নিয়ে বিস্তারিত আলাপ হয়েছে।’

ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মিয়ানমার সরকারের উচিত রোহিঙ্গাদের ওপর অমানবিক নির্যাতন বন্ধ করা।’

মঙ্গলবার ঢাকা সফরে এসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদের সঙ্গে বৈঠক শেষে রেতনো মারসুদি এই সংবাদ সম্মেলন করেন।

এর আগে সন্ধ্যা সাতটায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং বিকেল চারটায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী। আজই রাত ১১টা ৫৫ মিনিটে তার ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে।
গত ২৪ আগস্ট মধ্যরাতের পর থেকে রাখাইনে সহিংসতা চলছে। এতে এখন পর্যন্ত ৪ শতাধিক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচির দপ্তর।

আর জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআরের দাবি, সেনাবাহিনীর নির্যাতনের মুখে মঙ্গলবার পর্যন্ত ১ লাখ ২৫ হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।