উ. কোরিয়া সংকট নিয়ে পুতিনের হুঁশিয়ারি
কূটনীতি ছাড়া অন্য কোনো পন্থা ‘বিশ্বব্যাপী বিপর্যয়’ সৃষ্টি করবে

আবু সাইদ: উত্তর কোরিয়া সংকট নিরসনে কূটনীতি ছাড়া অন্য কোনো পন্থা অবলম্বন করলে ‘বিশ্বব্যাপী বিপর্যয়’ ঘটবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

মঙ্গলবার ‘রাশিয়া টুডে’র বিবরণ অনুযায়ী, পুতিন একটি সংবাদ সম্মেলনে উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক রকেট পরীক্ষাকে ‘প্ররোচনামূলক’ বলে নিন্দা জানালেও সঙ্গে এ কথাও বলেছেন যে, কূটনীতি ছাড়া অপর কোনো পন্থা অবলম্বন করলে তিনি একটি বিশ্বব্যাপী বিপর্যয়ের আশঙ্কা দেখেন।

‘বর্তমান পরিস্থিতিতে সামরিক উত্তেজনা বাড়িয়ে চলা অর্থহীন’ উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘এর ফলে বিশ্বব্যাপী বিপর্যয় ও বিপুল প্রাণহানির অবতারণা ঘটতে পারে।’

পুতিন বলেন, শান্তিপূর্ণ আলাপ-আলোচনা ছাড়া উত্তর কোরিয়ার পরমাণু প্রসঙ্গটির সমাধান করার আর কোনো উপায় নেই৷

‘উত্তর কোরিয়ায় যদি নিরাপদ না বোধ করে তাহলে তারা তাদের পারমাণবিক অস্ত্র কর্মসূচি সীমিত করবে না। শাস্তিমূলক ব্যবস্থা সাহায্য করতে পারে, কিন্তু যেকোনো ধরনের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা বলবৎ করা অর্থহীন’ যোগ করেন পুতিন।

এদিকে জাতিসংঘে মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি  সোমবার বলেন, উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন দৃশ্যত ‘যুদ্ধের জন্য আকুল’৷ হ্যালি বলেন, ওয়াশিংটন অন্যান্য দেশের ওপর উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে বাণিজ্যিক লেনদেন বন্ধে চাপ দেবে।

নিরাপত্তা পরিষদে এ সংক্রান্ত একটি নতুন প্রস্তাব চলতি সপ্তাহে পেশ করবেন বলেও জানান তিনি।

 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে-ইনের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন। উভয় নেতাই একমত হন যে, পিয়ংইয়াংয়ের সর্বাধুনিক ভূগর্ভস্থ পারমাণবিক বিস্ফোরণ একটি অভূতপূর্ব প্ররোচনা। তারা দক্ষিণ কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর পে-লোড বা বোমার ওজন বাড়ানো সম্পর্কে একমত হন।

 

সূত্র : এএফপি, এপি।