বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিযুক্ত কয়েন না নেওয়ায় বঙ্গবন্ধুকে অবমাননার দায়ে আটক দোকানি

আনোয়ারুল করিম: দোকানদার একটাকার কয়েন নিতে না চাওয়ায় তার বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধুকে অবমাননার মামলা করেছেন এক ক্রেতা। মামলার পর ফজলুর রহমান (৫০) নামের ওই ব্যবসায়ীকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

জানা গেছে, ঘটনাটি কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী পৌর এলাকার ঘাগৈর গ্রামের আসাদ মিয়ার ভাগিনা মিজানুর রহমান স্থানীয় মুদি ব্যবসায়ী ফজলুর রহমানের দোকান থেকে দু’টি স্টার সিগারেট কিনে একটি পাঁচ টাকা, দু’টি দুই টাকার নোট ও একটি এক টাকার কয়েন দেয়। এ সময় দোকানী ১টাকার কয়েনের বদলে নোট দিতে বলে। এ নিয়ে তাদের দুজনের ভেতর তর্ক বাধে। পরে মিজানুর রহমান বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত কয়েনকে অবমাননার বিষয় উল্লেখ করে কটিয়াদী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে মুদি ব্যবসায়ী ফজলুর রহমানকে আটক করে পুলিশ।

এদিকে থানায় অভিযোগ দায়েরের পর মিজানকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। মিজান ঢাকার উত্তরা এলাকা থেকে বেড়াতে এসেছিলো কিশোরগঞ্জের মামার বাসায়।

এ বিষয়ে কটিয়াদী থানার ওসি জাকির রব্বানী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে অবমাননার অভিযোগে ফজলুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

থানায় আটক ফজলুর রহমান বলেন, ‘আমি মিজানকে কয়েনটির পরিবর্তে নোট দিতে বললে সে আমাকে অশ্লীল ভাষায় গালাগালি করে এবং দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। আমি বঙ্গবন্ধুর বিষয়ে কোনও ধরণের মন্তব্য করিনি। তার মিথ্যা অভিযোগের প্রেক্ষিতে সোমবার ভোররাতে পুলিশ আমাকে আটক করেছে।’