নয়াপল্টনে রিজভী
মিয়ানমারের হেলিকপ্টার সীমা অতিক্রম করায় দায়সারা প্রতিবাদ করে সরকার

শাহানুজ্জামান টিটু : মিয়ানমার বাহিনীর হেলিকপ্টার বার বার বাংলাদেশের সীমা অতিক্রম করলেও সরকার দায়সারা একটি প্রতিবাদ লিপি দিয়ে কর্তব্য শেষ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতা রহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, বিশ্ব সম্প্রদায়ের সঙ্গে জোরালো লবিং করে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে ভোটারবিহীন আওয়ামী সরকার ব্যর্থ হয়েছে। এমনকি তারা জোরালো ভাষায় প্রতিবাদটুকুও করছে না।

রোববার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রহুল কবির রিজভী ।

তিনি বলেন, জাতিসংঘসহ বিভিন্ন বিশ্ব সংস্থা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে বাংলাদেশ সরকারকে আহবান জানালেও সরকার রোহিঙ্গাদের সঙ্গে পাষাণের মতো আচরণ করছে।

বিএনপির মুখপাত্র বলেন, মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীর বর্বরতা ও বাংলাদেশ সরকারের বাহিনীর মধ্যে অনেকাংশেই মিল পাওয়া যায়। তাই তাদের নৈতিক মনোবল বা শক্তি না থাকায় জোরালো কুটনৈতিক তৎপরতা চালাতে পারছে না।

রিজভী বলেন, বাংলাদেশে ঈদুল আজহার উৎসবকে ঘিরেও ক্ষমতাসীন গোষ্টির লোকেরা চালিয়েছে বন্যউৎসব। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবি যখন সর্বত্র জোরালোভাবে উচ্চারিত হচ্ছে ঠিক সেই মুহুর্তে আবারও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গতকাল বলেছেন শেখ হাসিনার অধীনেই সহায়ক সরকার হবে।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের সাথে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও শ্রেনী পেশার মানুষের যে সংলাপ চলছে সেখানে প্রায় সকলেই সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে নির্বাচন কালীন নির্দলীয় নহায়ক সরকারের পক্ষে কথা বলেছেন। কিন্তু আওয়ামী লীগ পরিকল্পিতভাবে নির্বাচনী ঘর অগোছালো রাখতে পারলেই তাদের দলীয় উদ্দেশ্য সাধিত হয়। ক্ষমতাসীনদের চন্ডনীতির কারণেই রাজনৈতিক বোঝাপড়ার জায়গাটা হারিয়ে যাচ্ছে।