প্রধান বিচারপতিকে চাপ দিয়ে রায় পরিবর্তনের চেষ্টা চলছে : বিএনপি

কিরণ সেখ : সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে সরকার প্রধান বিচারপতির ওপর চাপ সৃষ্টি করে রায় পরিবর্তনের চেষ্টা করছে বলে মন্তব্য বিএনপি।

রোববার রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচে ছাত্রদল আয়োজিত এক দোয়া মাহফিলে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ মন্তব্য করেন।

‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনা’ উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সরকার এখন প্রধান বিচারপতির ওপরে চাপ সৃষ্টির মাধ্যমে জোর করে তাকে দিয়ে রায় পরিবর্তন করানোর জন্য আপনারা প্রকাশ্যে বলছেন। তবে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ কি করবেন, আমরা জানি না। প্রধান বিচারপতি কি করবেন আমরা জানি না। বাংলাদেশের জনগণ কখনো সরকারের এই অন্যায় মেনে নেবে না।

গতকাল শনিবার রাতে প্রধান বিচারপতির বাসায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বৈঠকের খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, আমরা খুব উদ্বিগ্ন ও শঙ্কিত হয়ে গেছি। ওবায়দুল কাদের সাহেব গতকাল রাতে প্রধান বিচারপতির বাসায় গেছেন, কখন গেছেন? আওয়ামী লীগের ওয়ার্কিং কমিটির মিটিং করে তারপরে তিনি প্রধান বিচারপতির বাসাভবনে গেছেন। আমরা আরও বিস্মিত হলাম, সেখানে তিনি নৈশভোজও করেছেন!
প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদের বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা দুঃখিত, লজ্জিত ও শঙ্কিত হই। কারণ গণতন্ত্রকে ধ্বংস করবার জন্য আবার নতুন কি ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে!
সরকারকে উদ্দেশ্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, নির্দলীয় নিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের মাধ্যমে নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। গণতন্ত্রের স্তম্ভগুলোকে ধ্বংস না করে এবং বিচার বিভাগের ওপর চাপ সৃষ্টি না করে সোজা রাস্তায় আসুন, সোজা পথে ফিরে আসুন, সিধা পথে চলুন। তা না হলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা পালানোর পথ পাবে না।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি রাজিব আহসানের সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিলে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি প্রমুখ বক্তব্যে রাখেন।