যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক হামলার হুমকি নাকচ করলো ভেনেজুয়েলা

সালেহ ইউসুফ: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভেনেজুয়েলায় সামরিক অভিযান চালানোর হুমকির জবাবে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জর্জ অ্যারেজা তা নাকচ করে দেন।

অ্যারেজা বলেন, ভেনেজুয়েলায় সামরিক অভিযান চালানোর কোনো কোনো আইনি ইখতিয়ার যুক্তরাষ্ট্রের নাই। দেশটি এমন হুমকি দিয়ে জাতি সংঘ এবং আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন করেছে। দেশটি সম্পূর্ণভাবে ট্রাম্পের অবন্ধুসুলভ এবং যুদ্ধ প্ররোচিত করার হুমকি নাকচ করে দিচ্ছে।

শনিবার বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট এভো মোরালেসও টুইটারে এ নিয়ে নিন্দা প্রকাশ করেন। তিনি লিখেন ভেনেজুয়েলা যেখানে শান্তি অন্বেষণ করছে সেখানে যুক্তরাষ্ট্র সামরিক হামলা চালানোর হুমকি দিচ্ছে। এ হুমকির নিন্দা জানাচ্ছি। পাশিপাশি এ নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নিরব ভ‚মিকা পালন করা নিয়েও তিনি নিন্দা করেন।

বিরোধী গোষ্ঠীর তীব্র আন্দোলনের মুখেই ৩০ জুলাই ভেনেজুয়েলায় ১৯৯৯ সালের সংবিধান সংস্কারে বিশেষ সদস্য নির্বাচন করতে দেশটিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। বির্তকিত এই নির্বাচনকে ঘিরে গভীরতর রাজনৈতিক সঙ্কট দেখা দেয়। নির্বাচন চলাকালে পুলিশের গুলিতে বিরোধী দলের এক নেতাসহ অন্তত ১০ বিক্ষোভকারী নিহত হন। বিতর্কিত নির্বাচনে দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো বিজয়ী হন।

যুক্তরাষ্ট্র এ নির্বাচনের নিন্দা করে মাদুরো সরকারের উপর আরো কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে বলে ঘোষণা দেয়। পরে মাদুরে যুক্তরাষ্ট্রে কোনো ধরনের ব্যবসা করতে পারবে না বলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ হয়। এরই ধারাবাহিকতায় দেশটিতে সামরিক হামলার ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। সিনহুয়া, ইউএসএটুডে ও টাইমস অব ইন্ডিয়া