ভেনেজুয়েলায় সামরিক হস্তক্ষেপের হুমকি দিলেন ট্রাম্প

কামরুল আহসান : এবার ভেনেজুয়েলায় সরাসরি সামরিক হস্তক্ষেপের হুমকি দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, চলমান সংকট নিরসন না করলে যুক্তরাষ্ট্র অবশ্যই সমাধানে এগিয়ে আসবে।

যুক্তরাষ্ট্রের হাতে অনেক সুযোগ আছে সমস্যা সমাধানের। তার মধ্যে একটি সরাসরি সামরিক হস্তক্ষেপ। আমাদের সৈন্যবাহিনী পৃথিবীর অনেক দূর-দূরান্তে থাকে।

ভেনেজুয়েলা খুব বেশি দূরে নয়। আমরা যে- কোনো সময়ই সে দেশে আক্রমণ চালাতে পারি। তাদের জনগণের দূরাবস্থা অমানবিক।
ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো একে চরম অবস্থার বহিঃপ্রকাশ বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেছেন, আমাদের অবস্থা তিনি জানেন না।

আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করছি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের। ভেনেজুয়েলার প্রতিরক্ষামন্ত্রী ভ্লাদিমির পেদরিনো ট্রাম্পের এমন মনোভাবকে পাগলামি বলে মন্তব্য করেছেন।

ট্রাম্প মাদুরোর কর্মকা-কে একনায়কতান্ত্রিক আচরণ বলে চিহ্নিত করেছেন। তিনি বলেছেন, ভেনেজুয়েলার জনগণের দুর্দশার শেষ নেই। তারা মারা যাচ্ছে। তাদের বাঁচাতে অবশ্যই আমরা এগিয়ে আসবো।

মাদুরোও দীর্ঘদিন ধরে এই ভীতিতে ছিলেন যে কখন তাদের জনগণকে বাঁচাতে মার্কিন আগ্রাসন শুরু হয়। কারণ, তিনি এর মধ্যেই প্রচার করেছেন, তার বিরুদ্ধে বিদ্রোহীরা আর কেউ নয়, তারা যুক্তরাষ্ট্রের উসকে দেয়া সন্ত্রাসী।

বছরব্যাপী চলমান সহংসিতায় এ পর্যন্ত ভেনেজুয়েলায় নিহত হয়েছে শতাধিক মানুষ। আহত হয়েছে সহস্রতাধিক। ভোগ্যপণ্যের দাম বেড়েছে ৮০০ শতাংশ। প্রয়োজনীয় পুষ্টি না পেয়ে ৭৫ শতাংশ মানুষের ওজন ৮.৭ কেজি কমে গেছে। ব্যাপক মুদ্রাস্ফিতির মধ্যে আক্রান্ত দেশটিতে নেই প্রয়োজনীয় খাদ্য ও চিকিৎসাব্যবস্থা। জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন প্রতিনিধি নিকি হিলিও ভেনেজুয়েলা পরিস্থিতিকে মানবাধিকারের লঙ্ঘন বলে মন্তব্য করেছেন।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, বিবিসি, রয়টার্স