কুতুবদিয়া বায়ু বিদ্যুৎকেন্দ্র : আলোকিত হচ্ছে সাগরঘেরা জনপদ

মুমিন আহমেদ : পরীক্ষামূলকভাবে চালু হয়েছে কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় দ্বিতীয় বায়ু বিদ্যুৎকেন্দ্র। এই কেন্দ্রের অভিজ্ঞতা উপকূলীয় এলাকায় বায়ুবিদ্যুৎ উৎপাদনে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। বর্তমানে কেন্দ্র থেকে প্রতিদিন এক মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাচ্ছে।
এ পদ্ধতিতে বাতাসে পাখার ঘুরপাকের ফলে টারবাইন থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন হয়। উৎপাদিত বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে পৌঁছে যাচ্ছে কুতুবদিয়ার ঘরে ঘরে। ফলে আলোকিত হচ্ছে সাগরঘেরা এই জনপদ।
দ্বীপ উপজেলাটির মানুষকে বিদ্যুৎ দিতে প্রথম বায়ুবিদ্যুৎ কেন্দ্র হয়েছিল ২০০৮ সালে । কিন্তু সাগরের ভাঙন আর ঘূর্ণিঝড়-জলোচ্ছ্বাসে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় পূর্ণ উৎপাদন ফিরতে পারেনি কেন্দ্রটি। তাই নতুন আরেকটি বায়ু বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়। তবে নতুন কেন্দ্রটি স্থাপন হয়েছে আগের অভিজ্ঞতা মাথায় রেখেই।
উপকূলীয় এলাকায় আরও বায়ু বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনার আছে সরকারের। এতে কাজে লাগবে কুতুবদিয়ার অভিজ্ঞতা।
কুতুবদিয়ার নতুন বায়ু বিদ্যুৎকেন্দ্রটি করতে খরচ হয়েছে ২৪ কোটি টাকা। এর ২০টি টারবাইন থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ পাচ্ছে সাড়ে সাতশো পরিবার। সূত্র: ইনডিপেন্ডেন্ট টিভি