জি২০ সম্মেলন সামনে রেখে মানবাধিকারকর্মীদের আবেদন

g20-logo-550x367ইমরুল শাহেদ : চীনের পূর্বাঞ্চলীয় শহর হেংঝুতে আগামী ৪ ও ৫ সেপ্টেম্বর জি২০ দেশগুলোর শীর্ষ সম্মেলনে যেন চীনের মানবিধকারকে পাশ কাটিয়ে না যাওয়া হয়, তার জোর দাবি জানিয়েছে চীনের মানবাদিকারকর্মীরা। তাদের ভাষায়, গত কয়েক দশক থেকেই মানবাধিকারকর্মীদের উপর সেখানে নির্যাতন চালানো হচ্ছে। তারা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে আবেদন করেছেন, এজন্য তারা যেন চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টিকে জবাবদিহিতার আওতায় আনেন।
জি২০ নেতাদের কাছে এক লিখিত পত্রে চীনের মানবাধিকারকর্মীরা (সিএইচআরডি) বলেছেন, ‘আপনারা যখন চীনে পৌঁছবেন, তখনও দেখা যাবে ১৯৮৯ সালে গণতান্ত্রিক আন্দোলন শুরু হওয়ার পর থেকে মানবাধিকার কর্মীদের উপর কেমন দমন-পীড়ন চালানো হয়েছে এবং হচ্ছে। তাদের পত্রে বলা হয়, ‘প্রেসিডেন্ট শী জিনপিংয়ের প্রশাসন এমন কিছু নীতি অনুশীলন করে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে যার কোনো জবাবদিহিতা নেই।’
মানবাধিকার কর্মীরা পত্রটিতে উল্লেখ করেছেন, সুশীল সমাজ দম বন্ধ অবস্থায় আছে, ভিন্ন মতাবলম্বীদের উপর নিপীড়ন বাড়ানো হয়েছে, ধার্মিক ও সংখ্যালঘুদের পাশ কাটিয়ে যাওয়া হচ্ছে। বেইজিং তাদের নিজের আইন এবং আন্তর্জাতিক চুক্তির প্রতি কোনো দায়বদ্ধতা দেখাচ্ছে না। হেংঝুয়ের একজন অধিবাসী জানিয়েছেন, গত কয়েক সপ্তাহ থেকে নৈসর্গিক শোভামন্ডিত এই শহরটির ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, নাগরিকদের গতিবিধির উপর নিরাপত্তা নজরদারি বাড়ানো হয়েছে এবং স্থিতিশীলতার কথা বলে অনেক নাগরিককে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ বিশেষভাবে চীনের উইঘুর মুসলিমদের উপর নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। প্রোটেসটেন্টদেরও বলা হয়েছে, বৈঠক অনুষ্ঠিত না হওয়া পর্যন্ত যাতে চার্চে ভীড় জমানো না হয়। সূত্র : রেডিও ফ্রি এশিয়া