উভয় কাশ্মীরেই তদন্ত টিম পাঠানোর প্রস্তাব জাতিসংঘের

UN-Send-team-to-Kasmirমমিনুল ইসলাম: ভারত ও পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত উভয় কাশ্মীরেই তদন্ত টিম পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছে মানবাধিকার বিষয়ক জাতিসংঘ হাইকমিশনার। বৃহস্পতবিার পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দপ্তর এ তথ্য জানিয়েছে। খবর ডনের।
পাকিস্তান পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র নাফিস জাকারিয়া জানান, জাতিসংঘ হাইকমিশনারের পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত আজাদ কাশ্মীর (এজেকে) পরিদর্শনের ধারণার সঙ্গে উম্মুক্ত রয়েছে ইসলামাবাদ। তিনি বলেন, ‘এজেকে প্রত্যেকের জন্য উম্মুক্ত একটি এলাকায়। এখানে জাতিসংঘের প্রতিনিধিসহ পাকিস্তানে অবস্থানরত কূটনৈতিক সম্প্রদায়ের সদস্য ও বিদেশি পর্যটকদের ঘনঘন য়াতায়াত রয়েছে।’
নাফিস জানান, জাতিসংঘ মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনের কার্যালয়কে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে (আইএইচকে) প্রবেশে অস্বীকৃতি জানিয়েছে নয়াদিল্লি। তবে পাকিস্তান আজাদ কাশ্মীরে জাতিসংঘ কর্মকর্তাদের পরিদর্শনে কখনই বাধা দেয়নি।
পাকিস্তান গত ১৫ জুলাই ব্যাপক হারে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু কাশ্মীরে (আইএইচকে) সত্যানুসন্ধানী টিম পাঠাতে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষযক হাই কশিমশনকে অনুরোধ জানায়।
গত ৮ জুলাই ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে সেখানকার হিজবুল মুজাহিদিন কমান্ডার বুরহান ওয়ানি নিহত হয়। এ ঘটনায় দক্ষিণ কাশ্মীরজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে ভারতবিরোধী ব্যাপক সহিংসতা। আন্দোলনকারী ও ভারতীয় বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষে নিহত হয় ৬০ জনের অধিক মানুষ। এনিয়ে দুদেশের মধ্যে উচ্চ মাত্রার উত্তেজনা দেখা দেয়।
নাফিস আরও জানান, ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে ব্যাপক হারে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে। তাই পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর পরিস্থিতির সঙ্গে সমান হিসেবে তুলনাকে পাকিস্তান মেনে নিতে পারে না। ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে সত্যানুসন্ধানী টিম পাঠানোই এখন গুরুত্বপূর্ণ।