‘আশিকী’ নিয়ে হতাশ মৌসুমী

b362e7e9c647d821deda9aeab04967aa-1ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ‘প্রিয়দর্শিনী’ অভিনেত্রী মৌসুমী। ২২ বছরের চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারে তিনি উপহার দিয়েছেন প্রায় দু শ’এর মতো ছবি। এবারের ঈদেও মুক্তি পেয়েছে মৌসুমী অভিনীত ছবি ‘আশিকী’। ছবিটিসহ অন্যান্য প্রসঙ্গ নিয়ে কথা বলেছেন তিনি।
কেমন কাটালেন ঈদ?
ঈদ খুব একটা ভালো কাটেনি। হাসপাতাল আর বাসা এ নিয়েই ব্যস্ত থাকতে হয়েছে আমাকে।
হাসপাতালে কেন?
আমার স্বামী (চিত্রনায়ক ওমর সানি) ঈদের আগেই ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হন। অবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছায় যে তাঁকে হাসপাতালেই ভর্তি করাতে হয়। তাই এবারের ঈদ হাসপাতালেই কাটাতে হয়েছে। অবশ্য এখন সে মোটামুটি ভালো। তবে চিকিৎসক বলেছেন আরও কয়েকটা দিন বিশ্রামে থাকতে।
ঈদে তো আপনার ছবি মুক্তি পেয়েছে ৃ
হ্যাঁ। কিন্তু দেখার সময় পাইনি। তা ছাড়া খুব একটা আগ্রহও পাচ্ছি না।
‘আশিকী’ ছবিতে আপনার চরিত্রের শুরুটা ঠিক থাকলেও শেষটা দর্শকের মনে প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।
এটা খুবই স্বাভাবিক। কারণ, আমার চরিত্রের শুরুটা দেখানো হলেও শেষটা দর্শকের কাছে অজানাই থেকে গেছে। ছবি মুক্তির পর থেকেই এমন কথা শুনতে শুনতে আমি বিরক্ত। শুটিংয়ের সময় পরিচালক খুব তাড়াহুড়ো করেই কাজটা করেছেন। তখন এমনও বলেছিলেন, পরে আরও দু-এক দিন শুটিং করবেন। কিন্তু পরে তাঁরা আর শুটিং করেননি। এ কারণে হয়তো জোড়াতালি দিয়ে গল্পটা মিলিয়ে দিতে চেয়েছেন তাঁরা। একজন অভিনয়শিল্পী হিসেবে এটা আমার জন্য খুবই দুঃখজনক। সত্যি কথা বলতে, ‘আশিকী’ ছবিটি নিয়ে আমি হতাশ।
‘আশিকী’ দেখেছেন এমন অনেকেই বলেছেন, ছবিতে ‘ক্রোমা শট’ বেশি ব্যবহৃত হয়েছে এবং পর্দায় তা ভালো লাগেনি। প্রেক্ষাগৃহে অনেকের কাছেই তা বিরক্তিকর লেগেছে। অনেককেই বলতে শোনা গেছে, কার্টুন ছবি দেখছি না তোৃ
আমি আসলে এখনো ছবিটি দেখিনি। এই ধরনের কথা কয়েক দিন ধরে আমিও শুনছি। পরিচিতজনদের অনেক এমনও বলছেন, ছবিটির গল্প বলার ধরনটাও তাঁদের মোটেও ভালো লাগেনি। নায়ক অঙ্কুশকেও কেমন যেন অন্যরকম লেগেছে। ছবিতে অকারণে হিন্দি সংলাপের ছড়াছড়ি। শুরুর দিকটা নাকি বেশি বিরক্তিকর ছিল। তবে ছবির গানগুলোর চিত্রায়ণের বেশ প্রশংসা শুনেছি। ‘আশিকী’ ছবিতে কাজ করা আমার অভিনয়জীবনের একটা ভুল সিদ্ধান্তই বলতে পারেন। প্রথম আলো