ফোনালাপ ফাঁস হওয়ায় বিব্রত দুই বিএনপি নেতা (অডিও)

phole-400x224ডেস্ক রিপোর্ট : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান ও যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এ্যাডভোকেট রইস উদ্দিন রইসের কথোপকথন ফাঁস হওয়ায় উভয়েই পড়েছেন বিব্রতকর পরিস্থিতিতে। সমপ্রতি মাহবুব ও রইসের মধ্যে ২১ মিনিট ৫২ সেকেন্ডের একটি গোপন কথোপকথন প্রকাশ করে ‘বাংলা লিকস’ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেল। সেখানে উঠে এসেছে ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির সঙ্গে খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ না করা, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাক্ষাৎ নিয়ে অনিশ্চয়তা, হাসিনা-খালেদা টেলিফোন আলাপ, চীন, জামায়াত, সেনাবাহিনী, ২০১৯ সালের জাতীয় নির্বাচন, সিনিয়র নেতাদের জামিন, দলের বিভিন্ন দুর্বল দিকসহ নানা প্রসঙ্গ। টেলিফোন আলাপে একটি কথা ছিল:‘বিএনপি দল আছে নাকি? খালেদাকে দিয়ে হবে না!’
লে. জেনারেল (অব.) মাহবুব ফোনালাপ প্রসঙ্গে বলেন, ‘এ ফোনালাপ নিয়ে কেউ কিছু করে ছেড়ে দিবে, তা নিয়ে কোনো বক্তব্য নেই। এটা আমেরিকাতে আইন করে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। লো মেন্টালিটি, লো কালচার- এটাই বক্তব্য আর কোনো কথা নেই।’ রইসের সঙ্গে আপনার নিয়মিত কথা হয় কিনা, এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, এ বিষয়ে ঘাপলা আছে। এটি নিয়ে কোনো আলোচনা করতে চাচ্ছি না।
অ্যাডভোকেট রইস জানান, তার বাড়ি পঞ্চগড় জেলার তেতুঁলিয়ায়। এলাকার নেতা হিসেবে জেনারেল মাহবুবুবের সঙ্গে তার কথা হয়েছে। কিন্তু সেটা কিভাবে ফাঁস হল সেটা তিনি জানেন না। রইস দাবি করেন, জেনারেল মাহবুবের সঙ্গে তার নিয়মিত কথা হয়। তবে যে ফোনালাপ ফাঁস হয়েছে তা একদিনের নয়। খ-িত অংশ প্রকাশ করা হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা কি আত্মসমালোচনাও করতে পারব না? আমরা প্রায়ই কথা বলি। তবে যা প্রকাশ হয়েছে তা পুরোপুরি আমাদের কথা নয়। ভিন্নভাবে প্রকাশ করা হয়েছে। নিজেকে খুব অসহায় মনে হচ্ছে। উল্লেখ্য, ‘বাংলা লিকস’ চ্যানেল ইতিপূর্বে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, সাদেক হোসেন খোকা ও মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ বেশ কয়েকজন রাজনীতির ফোনালাপ ইউটিউবে প্রকাশ করেছিল। ইত্তেফাক

https://www.youtube.com/watch?t=312&v=tBXvfcSxhmM